1. numanashulianews@gmail.com : kazi sarmin islam : kazi sarmin islam
  2. admin@newstvbangla.com : newstvbangla : Md Didar
এই আওয়ামী লীগ হিরো আলমের কাছেও এতটা অসহায় "বিএনপি মহাসচিব" - NEWSTVBANGLA
সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৩:৫৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম
পবিত্র রমজানে আপেল ও আঙ্গুরের পরিবর্তে বরই দিয়ে ইফতার করার পরামর্শ : শিল্পমন্ত্রী জাতীয় শিশু দিবস পালন উপলক্ষে ৩ দিনব্যাপী কর্মসূচি পালনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জাতীয় সংগীত শেষে নিয়মিত মাদকবিরোধী প্রচারণা চালানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে দিনের তাপমাত্রা ১-৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে ফ্লাইট এমএইচ৩৭০ এর অনুসন্ধান কাজ ফের শুরু করতে পারলে ‘খুশি হবেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিষেধাজ্ঞা প্রাপ্ত ওই ছয় কর্মকর্তা নাভালনির মানবাধিকার লঙ্ঘন তাকে নিষ্ঠুরভাবে শাস্তি ও শেষ পর্যন্ত তার মৃত্যুর সাথে জড়িত ছিল বিচারপতি হিসাবে অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের সম্ভবত আজই শেষ দিন আমাকে যদি ক্যাডাভেরিক কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট সংক্রান্ত সব তথ্য-উপাত্ত দেওয়া হয়: ফেরদৌস নওগাঁর সাপাহারে সাবেক সচিব মরহুম এম মহবুবউজ্জামানের স্মরণ সভা আমাদের যে সূচকগুলো আছে উন্নয়নের সেগুলো বাড়ছে অর্থমন্ত্রী

এই আওয়ামী লীগ হিরো আলমের কাছেও এতটা অসহায় “বিএনপি মহাসচিব”

প্রতিনিধি

বিএনপির ছেড়ে দেওয়া সংসদীয় আসনে উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলমকে কেন্দ্র করে দেশের বড় দুই রাজনৈতিক দলের বক্তব্যে হতাশা ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন সংবাদের বিপরীতে এক প্রতিক্রিয়ায় সোমবার (৬ ফেব্রুয়ারি) টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, একজন সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী, সর্বোপরি দেশের একজন সাধারণ নাগরিককে নিয়ে দুটি রাজনৈতিক দলের বা কারোরই এমন উপহাস করার কোনো অধিকার নেই। আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলমকে কেন্দ্র করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির অবমাননা ও উপহাসমূলক পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দেওয়ার ঘটনা অনভিপ্রেত।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে আমরা দেখেছি, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘হিরো আলম এখন জিরো হয়ে গেছে। হিরো আলমকে বিএনপি নির্বাচনে দাঁড় করিয়েছে। তারা সংসদকে ছোট করার জন্য তাকে প্রার্থী করেছে।’ অন্যদিকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘এই আওয়ামী লীগ হিরো আলমের কাছেও কতটা অসহায়। রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে তার সঙ্গে জিততে হয়।’ দুই ক্ষেত্রেই সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী আশরাফুল হোসেন আলমকে অবজ্ঞা বা তাচ্ছিল্যসূচক বিবেচনায় পরস্পরকে আক্রমণ করেছেন দুই নেতা।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের রাজনৈতিক রীতি অনুযায়ী পরস্পরকে নিয়ে বিষোদ্গার নতুন কিছু নয়। কিন্তু সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী আশরাফুল হোসেন আলমের ব্যক্তি পরিচয় ও অবস্থাকে মানদণ্ড হিসেবে দাঁড় করিয়ে দুই দল একে অপরকে আক্রমণ করেছেন। সেই মানদণ্ড যে ইতিবাচক কিছু নয়, বরং এর মাধ্যমে আলম এবং সর্বস্তরের সাধারণ মানুষকে হেয় প্রতিপন্ন করা হয়েছে তা বলাই বাহুল্য। পাশাপাশি দেশের ‘সাধারণ’ একজন নাগরিকের প্রতি দুই বর্ষীয়ান রাজনীতিকের এমন আচরণ বাংলাদেশের রাজনৈতিক সংস্কৃতির স্থূলতাকেই জনসমক্ষে প্রতিষ্ঠিত করে।

ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, কোনো ব্যক্তি বাংলাদেশের নাগরিক হলে এবং তার বয়স পঁচিশ বছর পূর্ণ হলে, কোনো উপযুক্ত আদালত কর্তৃক অপ্রকৃতিস্থ ঘোষিত না হলে, দেউলিয়া না হলে, বিদেশি রাষ্ট্রের নাগরিকত্ব গ্রহণ না করলে বা আনুগত্য স্বীকার না করাসহ কিছু শর্ত পূরণে তিনি সংসদ সদস্য হতে পারবেন। সংবিধানের শর্ত পূরণের পরও আলমকে কেন্দ্র করে দেশের বড় দুটি রাজনৈতিক দলের বক্তব্য শুধুমাত্র রাজনৈতিক শিষ্টাচারকেই ভূলুণ্ঠিত করে না, বরং তার সাংবিধানিক অধিকার অবজ্ঞার নামান্তরও বটে।
হিরো আলম নির্বাচিত হলে সংসদকে ছোট করা হতো- এমন বক্তব্যের মাধ্যমে প্রকারান্তরে সংসদকে ছোট করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2015
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তাহোস্ট