২০০ বছর বয়স, এখনও বছরে কয়েকশো ফল দেয় এই ঐতিহ্যবাহী কাঁঠাল গাছ

post top

তামিলনাড়ুর মালিগামপাট্টু নামক স্থানে রয়েছে একটি ২০০ বছরের প্রাচীন কাঁঠাল গাছ। গাছটি এখনও কয়েকশো ফল দেয় বলে দাবি স্থানীয়দের।

যে দিকেই তাকানো যায় সে দিকেই থরেথরে কাঁঠাল। তামিলনাড়ুর পানরুটি এমনই একটি স্থান, যেখানে প্রায় ৮০০ হেক্টর জমির উপর সারা বছরই কাঁঠাল চাষ হয়। পানরুটি শহরের কয়েক কিলোমিটার দূরেই মালিগামপাট্টু নামক গ্রামে রয়েছে একটি ঐতিহ্যবাহী কাঁঠাল গাছ। গাছটির বয়স ২০০ বছরেরও বেশি বলে দাবি স্থানীয়দের।

 

মালিগামপাট্টুর কৃষক সংগঠনের প্রেসিডেন্ট এস রামস্বামী জানান, তাঁরা চার পুরুষ ধরে এই গাছটির রক্ষণাবেক্ষণ করছেন। ২০০ বছর বয়স হয়ে গেলেও কাঁঠাল গাছটি এখনও ১৫০ থেকে ২০০ টি করে কাঁঠাল দেয় এক মরসুমে। এক একটি কাঁঠালের ওজন হয় তিন থেকে ১২ কিলোগ্রাম। স্বাদের দিক থেকেও এই গাছটির কাঁঠাল অন্য গাছের তুলনায় আলাদা বলে দাবি তাঁর।

শুধু এই একটি গ্রাম নয়, গোটা পানরুটিই কাঁঠাল চাষের জন্য প্রসিদ্ধ। প্রতি বছর এখানে ৪৫ থেকে ৫০ হাজার মেট্রিক টন কাঁঠাল উৎপাদিত হয়। পানরুটির কাঁঠাল চাষের উল্লেখ মেলে ইতিহাসের পাতাতেও। সম্প্রতি এই কাঁঠালের জিআই স্বীকৃতির জন্য আবেদন করা হয়েছে আদালতে। গুণগত দিক থেকে নাকি এই কাঁঠাল এতটাই ভাল যে মোট উৎপাদিত ফসলের ৯৫ শতাংশই রপ্তানিযোগ্য। ফলে ফসলের অপচয় প্রায় হয় না বললেই চলে।

print

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 + six =