হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা জারি ওয়াসার পানির বিল বৃদ্ধির সিদ্ধান্তে

post top

গ্রাহক পর্যায়ে পানির বিল বাড়ানোর ঢাকা ওয়াসার সিদ্ধান্তের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে হাইকোর্ট। গত ১ এপ্রিল থেকে আবাসিক ও বাণিজ্যিক গ্রহকদের পানির বিল বাড়িয়েছে ওয়াসা। এই সিদ্ধান্তের ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে রিট করেন এক আইনজীবী।

সোমবার রিটের শুনানির পর হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চ নিষেধাজ্ঞার আদেশ দেন। পানির পরবর্তী বিল থেকে আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রিটকারী আইনজীবী মো. তানভীর আহমেদ।

গত ১ এপ্রিল থেকে ঢাকা ওয়াসা আবাসিক গ্রাহকদের পানির বিল ২৫ শতাংশ বাড়িয়েছে। আর বাণিজ্যিক গ্রাহকের বিল বাড়ানো হয়েছে প্রায় ৮ শতাংশ। নতুন মূল্যহার অনুযায়ী প্রতি হাজার লিটার পানির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ টাকা ৪৬ পয়সা; যা আগে ছিল ১১ টাকা ৫৭ পয়সা। আর বাণিজ্যিকে প্রতি হাজার লিটারে ৩৭ টাকা ৪ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

পরে ঢাকা ওয়াসার এই সিদ্ধান্তে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। আইনজীবী অ্যাডভোকেট তানভীর আহমেদ জনস্বার্থে এ রিট দায়ের করেন। স্থানীয় সরকার সচিব, পানি সরবরাহ ও পয়োনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ (ঢাকা ওয়াসা) সহ সংশ্লিষ্টদের রিটে বিবাদী করা হয়।

রিটে অ্যাডভোকেট তানভীর আহমেদ কারণ ছাড়াই পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তার নির্দেশনা চান। একই সঙ্গে পানি সরবরাহ ও পয়োনিষ্কাশন আইনের ২২ নম্বর ধারার দুটি সেকশন চ্যালেঞ্জ করা হয়।

হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চে ই-মেইলের মাধ্যমে রিট আবেদনটি দাখিল করা হয়। এরপর ১৭ জুন এ-সংক্রান্ত রিটের প্রাথমিক শুনানি শুরু করে আদেশের জন্য ২২ জুন দিন ধার্য করেন। আজ সেটির শুনানি করে আদেশ দেন। সর্বশেষ গত সেপ্টেম্বরে পানির মূল্য ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছিল।

আদালতে ওয়াসার পক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তার সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

print

Share this post

post bottom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × three =