স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ কবিরহাটে

post top

নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১৫) হাত-মুখ বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মেয়েটির মা মামলা করেছেন। অভিযুক্ত আব্দুর রহিম রবিন (২০) পলাতক রয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার সুন্দলপুরের ৬নং ওয়ার্ড বারিপুকুর পাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিকালে ওই ছাত্রীর মা একটি অটোরিকশা যোগে সেনবাগ উপজেলায় তার নানার বাড়িতে যায়। এ সুযোগে পাশ্ববর্তী বাড়ির আব্দুর রহিম রবিন ওই ছাত্রীর ঘরে ঢুকে খাটের নিচে লুকিয়ে থাকে।

সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বাইরের কাজকর্ম শেষ করে মেয়েটি ঘরে ঢুকলে রবিন তাকে ঝাপটে ধরে মারধর করে তার হাত-মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে। এসময় তাদের ঘরের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় প্রতিবেশী এক গৃহবধূ ধস্তাধস্তি ও ভিকটিমের চিৎকার শুনে ঘরে ঢুকলে রবিন পালিয়ে যায়।

স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, ওই ছাত্রীকে বিদ্যালয়ের আসা-যাওয়ার সময় প্রায় বিরক্ত করত রবিন। বিভিন্ন সময় তাকে কুপ্রস্তাব দিলেও ছাত্রী রাজি না হওয়ায় এ ঘটনা ঘটিয়েছে রবিন।

কবিরহাট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ফজলুল কাদের পাটোয়ারী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। বলেন, ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে আব্দুর রহিম রবিনকে আসামি করে মামলা করেছেন। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মঙ্গলবার সকালে ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হবে।

print

Share this post

post bottom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 + 9 =