শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে স্বামীসহ শাবি শিক্ষিকা আটক

post top

গৃহকর্মীকে নির্যাতনের মামলায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিন ও তার স্বামী সোহাগকে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে কোতোয়ালি থানা পুলিশ তাদের মামলায় গ্রেপ্তার করে।

জানা যায়, কিশোরী গৃহকর্মীকে (১২) নানা অজুহাতে বেধড়ক মারপিট করে আসছিলেন অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিন ও স্বামী সোহাগ। ক’দিন আগে লোহার জিআই পাইপ দিয়ে নির্মমভাবে তাকে মেরে বাসায় আটকে রাখা হয়।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে ঘরের দরজা খোলা পেয়ে ওই গৃহকর্মী বাসা থেকে পালিয়ে পাশের বাসার আরেক গৃহকর্মীর সহযোগিতায় ৯৯৯ এ কল দিয়ে পুলিশকে নির্যাতনের কথা জানায়।

পরে পুলিশ দ্রুত গিয়ে সিলেট আখালিয়া সুরমা আবাসিক এলাকার রেনেসা ১১ নম্বর বাসা থেকে ওই দম্পতিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিলেট কোতোয়ালি থানায় নিয়ে আসে।

সিলেট কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মিয়া বলেন, গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগ পেয়ে বিকেলে অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়।

এরপর রাত ১২টার দিকে গৃহকর্মী শিশুটির বাবা আবুল কাশেম বাদী হয়ে থানায় শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করলে ওই মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়। শুক্রবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। নির্যাতিত গৃহকর্মীকে ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে পুলিশের ভিকটিম সার্ভিস সেন্টারে রাখা হয়েছে।

print

Share this post

post bottom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 + twelve =