শাস্তি হতে পারে মেসির শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে

post top

প্রত্যাশা মতো বার্সেলোনার মেডিকেল টেস্টে অংশ নিলেন না লিওনেল মেসি। সোমবার থেকেই দল নিয়ে নতুন মৌসুমের প্রস্তুতিতে নেমে পড়ার কথা কোচ রোনাল্ড কোম্যানের। তার আগে রবিবার ক্লাবের সব ফুটবলারদের মেডিকেল টেস্ট হল। যেখানে প্রথম সারির ৩১ জন ফুটবলার হাজির থাকলেও অধিনায়ক মেসির দেখা মিলল না।

, ক্লাবের অনুশীলন সংক্রান্ত শৃঙ্খলাভঙ্গের দণ্ড স্বরূপ তাকে ২ থেকে ১০ দিনের জন্য বহিষ্কার করা হতে পারে। এমনকী তার মাসিক বেতনের ৭ শতাংশ জরিমানা ধার্য হওয়ার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। এরপর মঙ্গলবারের অনুশীলনেও যদি মেসি যোগ না দেন, তাহলে ১০ থেকে ৩০ দিনের জন্য সাসপেন্ড হতে পারেন তিনি। সেক্ষেত্রে কেটে নেওয়া হতে পারে ২৫ শতাংশ বেতন। যদিও মেসির পক্ষ থেকে আগেই ক্লাব কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে, তিনি মেডিকেল টেস্টে অংশ গ্রহণ করবেন না। ফলে তার অনুপস্থিতি নিয়ে ক্লাব কী সিদ্ধান্ত নেয়, সেটাই এখন দেখার।

এদিকে, শনিবারই বার্সেলোনার পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, চুক্তির বাই আউট ক্লজ অনুযায়ী ৭০০ মিলিয়ন ইউরো দিয়েই ক্লাব ছাড়তে হবে মেসিকে। তবে রবিবার বেশ কয়েকটি স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম দাবি করে, মেসির চুক্তিপত্রে শেষ মৌসুমে কোনওরকম বাই আউট ক্লজের কথা উল্লেখ নেই। তাদের দাবি, ২০১৭ সালে মেসি শেষবার বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি নবীকরণ করেছিলেন। যেখানে তিন বছরের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন তিনি। পাশাপাশি এক বছরের ঐচ্ছিক চুক্তি হয়। যেখানে তিনি চাইলে শেষ বছর নাও বার্সার হয়ে খেলতে পারেন। এই মর্মেই মেসির আইনজীবী এখন বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তিভঙ্গ সংক্রান্ত বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছেন। বার্সেলোনার বোর্ড সদস্যরাও মেসিকে নিয়ে কিছুটা নমনীয় মনোভাব দেখাতে শুরু করেছেন।

print

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × five =