রাজধানীর বংশালে রিকশাচালককে মেরে অজ্ঞান করে ফেলার ঘটনায় আটক সুলতান

post top

রাজধানীর বংশালে রিকশাচালককে মেরে অজ্ঞান করে ফেলার ঘটনায় আটক সুলতান আহমেদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে আদালত। এছাড়া তার জামিন শুনানির জন্য ঈদের পর দিন ধার্য করেছেন বিচারক। এতে আগামী ঈদুল ফিতরের আগে তার মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা নেই।

বুধবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১৫ এ হাজির করা হয় এই আসামিকে। পুলিশ তাকে কারাগারে পাঠানোর আবেদন করে। আর আসামিপক্ষে করা হয় জামিন আবেদন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে সুলতান আহমেদকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক। এই মামলায় পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ২৩ মে ধার্য করা হয়।

সম্প্রতি বংশাল এলাকায় এক রিকশাচালককে মেরে অজ্ঞান করে ফেলার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। সেই সূত্র ধরে মঙ্গলবার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

নির্যাতনকারী সুলতান আহমেদ পেশায় একজন সাইকেল ব্যবসায়ী। তার কোনো রাজনৈতিক পরিচয় না থাকলেও বংশালে স্থানীয় ব্যবসায়ী হওয়ায় অনেক প্রভাবশালী তিনি। এছাড়া বংশালে তার চারতলা একটি বাড়ি রয়েছে। তারা পাঁচ ভাই সেখানে থাকেন।

ভাইরাল সেই ভিডিওতে দেখা যায়, রাজধানীর বংশালে এক ব্যক্তি এক রিকশাচালককে সজোরে থাপ্পড় মারছেন। তার নির্যাতনের এক পর্যায়ে ওই রিকশাচালক অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটে পড়েন। ভিডিওটি দেখামাত্র মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং বংশাল থানার ওসি মো. শাহীন ফকিরকে নির্দেশনা দেন নিপীড়নকারী লোকটিকে খুঁজে বের করে দ্রুত তাকে আইনের আওতায় আনতে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে বংশাল থানার ওসির নেতৃত্বে একটি টিম সুলতান আহমেদকে গ্রেপ্তার করে।

print

Share this post

post bottom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + 2 =