বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ মামলায় মাদ্রাসার পরিচালক গ্রেপ্তার

post top

গাজীপুরের শ্রীপুরে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদ্রাসার পরিচালকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার মাদ্রাসার পরিচালকে আটকের পর আজ বুধবার তাঁকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান।

 

গ্রেপ্তার মাদ্রাসার পরিচালকের নাম মো. এমদাদুল হক (৪৫)। তাঁর বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট উপজেলায়। তিনি গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের ছাতীর বাজার এলাকায় দারুল কুরআন মহিলা মাদ্রাসার পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

ভুক্তভোগী বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী শিশু (১১) শিক্ষার্থী ময়মনসিংহ জেলার ধোবাউড়া উপজেলার বলে জানা যায়। সে তার বাবা-মায়ের সঙ্গে শ্রীপুরে থাকে।

 

এ বিষয়ে শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার মাদ্রাসার পরিচালককে আজ (বুধবার) সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশুর বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১০ সেপ্টেম্বর ভুক্তভোগীকে মাদ্রাসায় ধর্ষণ করেন অভিযুক্ত পরিচালক। একপর্যায়ে ভুক্তভোগী শিশু অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। তখন অভিযুক্ত শিক্ষক শিশুটিকে গর্ভপাত করানোর জন্য ওষুধ সেবন করালে সে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এ সময় পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করে। প্রায় এক সপ্তাহ চিকিৎসার পর ভুক্তভোগী সুস্থ হয়। এদিকে ঘটনার পরপরই শিশুর বাবা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে অভিযুক্ত মাদ্রাসার পরিচালক এমদাদুল হককে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

print

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 4 =