বিশ্বের সমস্ত নারীর মধ্যে তাঁর মুখের ‘হাঁ’ সব চেয়ে বড়

post top

 এই কারণে তিনি নামও তুলে ফেললেন গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে। পেয়েছেন আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতিও।

তিনি সামান্থা রামসডেল (Samantha Ramsdell)। সামান্থার বাড়ি আমেরিকার (US) কানেকটিকাট অঞ্চলে। জানা গিয়েছে, শৈশব থেকেই সামান্থার মুখ তুলনামূলক ভাবে বেশ বড় ছিল। তাঁর ছোটবেলার হাসিমুখের ছবি দেখলে ব্যাপারটা সহজে বোঝা যায়। বয়স বাড়ার সঙ্গে-সঙ্গে সামান্থার মুখের হাঁ (sizeable jaw) আরও বড় হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সামান্থা বেশ জনপ্রিয়। সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করা তাঁর ভিডিয়োর মাধ্যমেই বড় মুখের রেকর্ড গড়ার বিষয়টি প্রথম তাঁর মাথায় আসে। আর তার পরেই আবেদন করেন গিনেস কর্তৃপক্ষের কাছে।

এরপরই গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস (Guinness World Records) কর্তৃপক্ষের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি আসে। সামান্থার হাতে তুলে দেওয়া হয় সনদ। তিনি এখন বিশ্বের সবচেয়ে বড় মুখের অধিকারিণী। সামান্থা নিজের বড় মুখের সম্বন্ধে যথেষ্ট অবহিত থাকলেও স্বীকৃতি পাওয়ার পরে তিনি কিন্তু বলেন, ‘আমি কখনোই ভাবিনি বড় মুখের কারণে জনপ্রিয় হব!’

গিনেসের রেকর্ড নথিভুক্ত তথ্য বলছে, সামান্থার মুখের মাপ আড়াই ইঞ্চি বা ৬.৫২ সেন্টিমিটার। আড়াআড়ি ভাবে মাপা হলে তা আরও চার ইঞ্চি বা ১০ সেন্টিমিটার বেশি হয়। জানা গিয়েছে, গিনেস কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধির উপস্থিতিতে একজন ডেন্টিস্ট দিয়ে তিনি তাঁর মুখ মাপান।

print

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − five =