বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দশ হাজার রোহিঙ্গার পাশে দাঁড়াল

post top

দশ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গার মাঝে ১০০ মেট্রিক টন চাল ও অন্যান্য দৈনন্দিন ব্যবহার্য সামগ্রী  বিতরণ করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। সম্প্রতি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ঘটে যাওয়া অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গা পরিবারগুলোকে এ সহায়তা দেওয়া হয়।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, কক্সবাজারের রামু ক্যাম্পে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর জন্য পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন কর্তৃক ১০ কেজি চাল এবং দৈনন্দিন ব্যবহার্য দ্রব্যাদি বিতরণ করা হয়েছে।

গত ২৭ এপ্রিল ক্যাম্প ৮ (ওয়েস্ট) এর সর্বমোট এক হাজার ৫৭৬ জনের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করার মাধ্যমে এ কার্যক্রম শুরু হয়। ত্রাণ কার্যক্রমের আওতায় এ পর্যন্ত ১০ হাজার ২১৫ ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গা পরিবারকে সর্বমোট ১০০ মেট্রিক টন চাল ও অন্যান্য দৈনন্দিন ব্যবহার্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

গত ২২ মার্চ কক্সবাজারের রামু উপজেলায় অবস্থিত এফডিএমএন ক্যাম্প ৮ (ইস্ট), ৮ (ওয়েস্ট) এবং ক্যাম্প ৯-এ ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটে।  এ অগ্নি দুর্ঘটনায় ক্যাম্প ৮(ইস্ট)-এর এক হাজার ৫৭৮টি, ক্যাম্প ৮ (ওয়েস্ট)-এর দুই হাজার ৬৫২টি এবং ক্যাম্প ৯ এর পাঁচ হাজার ৯৮৭টি ঘরবাড়ি পুড়ে যায়।

অগ্নিকাণ্ডের সময় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশন, রামু সেনানিবাসের অধীন উখিয়া, বালুখালী এবং পালংখালী আর্মি ক্যাম্পসমূহ থেকে যৌথবাহিনীর টহল দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় এবং অগ্নি নির্বাপণের প্রাথমিক ব্যবস্থা নেয়।

পরে অগ্নি দুর্ঘটনার ব্যাপকতা বিবেচনায় রামু সেনানিবাস থেকে ফায়ার ব্রিগেডের একটি দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি ফায়ার ক্রাস টেন্ডার, একটি বড় ওয়াটার বাউজার, সাতটি ওয়াটার ট্রেলার, দুটি অ্যাম্বুলেন্স এবং দুটি মেডিকেল টিম ঘটনাস্থলে অগ্নিনির্বাপণ ও উদ্ধার কার্যক্রমে সক্রিয়ভাবে অংশ নেয়।

print

Share this post

post bottom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − 16 =