জিপি ও রবিকে ওয়েব সিরিজ প্রচারে ব্যাখ্যা দিতে হচ্ছে

post top

ওয়েব সিরিজের নামে সেন্সরবিহীন কুরুচিপূর্ণ ভিডিও কনটেন্ট নিজেদের প্ল্যাটফর্ম ও নেটওয়ার্ক ব্যবহার আপলোড ও প্রচার করায় মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন ও রবির কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে সরকার।

আগামী সাত দিনের মধ্যে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা চেয়ে কোম্পানি দুটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে তথ্য অধিদপ্তর থেকে পৃথক দুটি চিঠি পাঠানো হয় বলে বৃহস্পতিবার এক সরকারি তথ্যবিবরণীতে জানানো হয়েছে।

চিঠি দু’টিতে বলা হয়, আপনার প্ল্যাটফর্ম এবং নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে সম্প্রতি ওয়েব সিরিজের নামে সেন্সরবিহীন নগ্ন, অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ দৃশ্য, কাহিনী ও সংলাপ সংবলিত ভিডিও কনটেন্ট ওয়েবে আপলোড করে প্রচার করা হয়েছে, বিষয়টি সরকারের দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

‘বিষয়টি সম্পর্কে দেশের গণমাধ্যম অত্যন্ত নেতিবাচকভাবে প্রচার করেছে এবং সমাজে এর ব্যাপক বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। এ ধরনের ভিডিও কনটেন্ট আপনার প্ল্যাটফর্ম এবং নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে ওয়েবে আপলোড এবং প্রচার করার জন্য আপনার প্রতিষ্ঠান সরকারের কোনো রেজিস্ট্রেশন বা লাইসেন্সপ্রাপ্ত কিনা এবং থাকলে তা কী, সেটা সরকারের জানা প্রয়োজন।’

ওয়েব সিরিজের নামে সেন্সরবিহীন অশালীন ভিডিও কনটেন্ট আপলোড ও প্রচার করা দেশের প্রচলিত আইনের সুস্পষ্ট লংঘন ও সামাজিক মূল্যবোধের পরিপন্থী উল্লেখ করে চিঠিতে বলা হয়, ‘এ ধরনের সেন্সরবিহীন, নগ্ন ও অশালীন দৃশ্য, কাহিনী ও সংলাপ সংবলিত ভিডিও কনটেন্ট প্রচার দেশের প্রচলিত আইন যেমন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ (সংশোধন) আইন, ২০১০-এর ৬৯ ধারা, পর্নগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১২-এর ৪ ও ৮ ধারা, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন, ২০০৬-এর পেনাল কোড, ১৮৬০-এর সম্পূর্ণ পরিপন্থী।’

‘এ ধরনের ভিডিও কনটেন্ট প্রচার আমাদের সমাজের প্রচলিত মূল্যবোধের পরিপন্থী। আপনার প্রতিষ্ঠানের মতো বৃহৎ একটি প্রতিষ্ঠানের কাছে এ ধরনের কার্যকলাপ মোটেই কাম্য নয়।’

উল্লিখিত ধরনের ভিডিও কনটেন্ট আপলোড ও প্রচারে কোম্পানি দু’টির সরকারি কোনো রেজিস্ট্রেশন বা লাইসেন্স আছে কি-না তার বিবরণসহ আগামী সাতদিনের মধ্যে ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য চিঠিতে বলা হয়েছে।

সম্প্রতি অনলাইন প্লাটফর্মে কয়েকটি ওয়েব সিরিজ প্রচার হয়। এসব ওয়েব সিরিজে ‘অশালীনতা’, ‘অকারণে নগ্নতা দেখানো’, ‘গালি’ এবং ‘যৌন সর্বস্ব’ কন্টেন্ট নিয়ে সমালোচনা চলছে। এসব কথিত ওয়েব সিরিজের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। এসব সেন্সরবিহীন কনটেন্ট প্রচারে শিল্পী-কলাকুশলীদের মধ্যেও দ্বিধাবিভিক্তি দেখা দিয়েছে।

গত ১৭ জুন সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে ওয়েব সিরিজে ‘আপত্তিকর দৃশ্য’ থাকার অভিযোগ আমলে নিয়ে এসবের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়েছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

print

Share this post

post bottom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 1 =