জাবি অ্যালামনাই এসোসিয়েশন সাভার উপজেলার মিলনমেলা অনুষ্ঠিত

post top

আব্দুল্লাহ আল নোমান, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, সাভার (ঢাকা):  জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই এসোসিয়েশন, ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ও ইতিহাস ১৫ ব্যাচের শিক্ষার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে তেঁতুলঝোড়া, ভাকুর্তা, বনগাঁও, আমিন বাজার ও কাউন্দিয়া ইউনিয়নে অবস্থানরত সাবেক জাবিয়ানদের নিয়ে এক মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৩টায় সাভারের তেঁতুলঝোড়া স্কুল এন্ড কলেজের অডিটোরিয়ামে ইতিহাস ১৫ ব্যাচের মো.বদরুল আলমের সভাপতিত্বে গণিত ১৯ ব্যাচের এস এম নজরুল ইসলাম ও অর্থনীতি ২৮ ব্যাচের আবু বকর সিদ্দিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠান শুরু হয়।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফখরুল আলম সমর।

অ্যালামনাই সদস্যবৃন্দের হাতে উপহার তুলে দেয়া হয়। 

এসময় জাবি অ্যালামনাই সাভার উপজেলার আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমার প্রথমে মনে হয়েছিল জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীরা মিলে বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় অ্যালামনাই করেছে আমরা সাভার উপজেলা কেন করছি না। এই ধারণা থেকেই অ্যালামনাই তৈরি করেছি। এর আগেও ২টি কমিটি হয়েছিল আমরা আবার তাদেরকে একত্রিত করে এই অ্যালামনাই গঠন করেছি। আমাদের সংগঠনে ছাত্রলীগ, ছাত্রদল এবং অন্যান্য ছাত্র সংগঠনের সাবেক নেতৃবৃন্দ রয়েছে। আমরা সকলে মিলে এই অ্যালামনাই গঠন করেছি। আমরা নির্দলীয় ও নিরপেক্ষভাবে এই অ্যালামনাইকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। আমরা প্রথমে ২০ জন সদস্য নিয়ে এটি শুরু করেছিলাম এখন আস্তে আস্তে সদস্য অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। অনেকেই এখনো জানে না আমাদের লক্ষ, উদ্দেশ্য কি? আমাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে আমরা সেবা দেয়ার চেষ্টা করছি। আমরা যদি যার যার অবস্থান থেকে সকলে মিলে সেবা দেই তাহলেই আমাদের অ্যালামনাই এর লক্ষ ও উদ্দেশ্য সফল হবে। আজকে শামসু মামা বলেছে সাভারের দুঃখ দুর্দশার কথা। আমরা অ্যালামনাই থেকে বলতে চাই পুলিশ প্রশাসনের ডিআইজি থেকে শুরু করে সাব ইন্সপেক্টর এবং সচিবালয় থেকে এসিল্যান্ড পর্যন্ত ও অন্যান্য প্রায় সকল ক্ষেত্রে জাবিয়ান রয়েছে। আমরা সকলে মিলে যার যার অবস্থান থেকে চেষ্টা করলে সাভারকে আমরা সারা বাংলাদেশ নয় সারা বিশ্বব্যাপী তুলে ধরতে পারবো ইনশাল্লাহ। আজকে ৫টি ইউনিয়নের প্রোগ্রাম এর মাধ্যমে আমরা এইসব ইউনিয়নের প্রায় ৫০ জন সাবেক জাবিয়ান পেয়েছি। তাদের সাথে পরিচিত হওয়া উঠাবসা বাড়ানোর জন্যই এই অ্যালামনাই। আমরা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার সময় হেল্প ডেস্ক দিয়েছিলাম সেখানে ফ্রি ব্লাড পরীক্ষা করাসহ বিভিন্ন সহযোগিতা করেছিলাম। পাশাপাশি ইমারজেন্সি ফ্রি বাইক সার্ভিসেরও ব্যবস্থা করেছিলাম। আমাদের অ্যালামনাই এর সদস্য মো.সাইফুল ইসলাম মারা গিয়েছে। আমরা তার পরিবারবর্গের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছি ও বিভিন্ন সহায়তা করছি। আজকের প্রোগ্রামে সবার স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখে খুবই ভালো লাগছে। আমরা আরো বড় বড় প্রোগ্রাম করবো সামনে ইনশাল্লাহ আজকের মতো সকলের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ চাই।

বক্তব্য রাখছেন জাবি অ্যালামনাই সাভার উপজেলার আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর আলম।

তিনি আরো বলেন, সামনে ১৭ ডিসেম্বর ইতিহাস বিভাগের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠান হবে। এই উপলক্ষে ১ মাসব্যাপী ইতিহাস বিভাগের বিভিন্ন প্রোগ্রাম থাকবে সবাই অংশগ্রহণ করবেন ইনশাল্লাহ।

ফখরুল আলম সমর বলেন, আপনাদের এই অ্যালামনাই সংগঠনটি অনেক দূর এগিয়ে যাক। অনেকেই সাভারের দুঃখ দুর্দশার কথা বলেছেন, আমি বলতে চাই যদি আপনারা যার যার অবস্থান থেকে আন্তরিকভাবে চেষ্টা করেন তাহলে এই দুঃখ দুর্দশা এড়ানো সম্ভব হবে ইনশাল্লাহ। আপনারা আমার গর্ভধারিণী মায়ের জন্য দোয়া করবেন, আমার জন্য দোয়া করবেন আমিও আপনাদের জন্য দোয়া করি। এই সংগঠনের সাথে জড়িত আপনারা সকলেই মানবতার কল্যাণে কোন না কোন কাজ করবেন এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করছি।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে ভূগোল ৩য় ব্যাচের মো. শামসুল হক, অর্থনীতি ১২ ব্যাচের মো.মহসীন, ভূগোল ১৪ ব্যাচের শহীদ, আশরাফুল আলম, ধীমান, ইতিহাস ১৪ ব্যাচের মো.আজম, ইতিহাস ১৫ ব্যাচের মো. ফারুক দেওয়ান, সরকার ও রাজনীতি ১৬ ব্যাচের দিল আফরোজ শামীম, আজমল আমীন টুটুল, অর্থনীতি ২৭ ব্যাচের সোহেল পারভেজ, সরকার ও রাজনীতি ৩৩ ব্যাচের সফিউল্লাহ সুজনসহ অ্যালামনাই সদস্যবৃন্দ, সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীগণ উপস্থিত ছিলেন।

print

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × one =