কোম্পানীগঞ্জ থানা এখন সিসি ক্যামেরার আওতায় প্রশংসায় পঞ্চমুখ: এসপি ফরিদ

post top

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি জয়নাল আবেদীন রোমান:

সিলেট জেলার কোম্পানীগঞ্জ থানার ভোলাগঞ্জ স্থলবন্দর,বর্ডারহাট,সাদা পাথর পর্যটন স্পষ্ট,হাইটেক পার্ক সহ থাকার কারণে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ইতিমধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

এবং পাথর ব্যবসা ও ভোলাগন্জ সাদা পাথর এলাকায় প্রতিনিয়ত হাজার ও পর্যটকদের ভিড় বেড়েই চলছে।

তাইতো শতভাগ নিরাপত্তা প্রদান, বাজার এলাকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও শান্তিপ্রিয় জনগনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরোও উন্নত এবং জোরদার করার স্বার্থে , সিলেট জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম’র দিকনির্দেশনায় ডিজিটাল পদ্ধতির মাধ্যমে ‘সিসি ক্যামেরা’র আওতায় আসছে উপজেলা পরিষদ সহ গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট গুলো।

উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট গুলো সার্বক্ষণিক মনিটর করা হবে ২৪ ঘন্টা ।আপাতত উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ২০টি সিসি ক্যামেরা বসানো হচ্ছে। পর্যায় ক্রমে আরো বাড়ানো হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসা কেন্দ্র টুকের বাজার পয়েন্টসহ এর আশ পাশে ৩ টি নাইট ভিশন সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে।

এ বিষয়ে আরো জানা যায় যে, ব্যবসায়ীদের উদ্যোগে আরও সিসি ক্যামেরা লাগানো হবে, থানা বাজার, ভোলাগন্জ বাজার, দয়ারবাজার সহ হাইটেক পার্ক এর সামনের রাস্তা। শহরের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক ও এলাকাবাসীর সার্বিক নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে পর্যায়ক্রমে আরোও সিসি ক্যামেরা অতিসত্বর সংযোজন করা হবে বলে জানা যায়।

এ বিষয়ে গরীব অসহায় মানুষের প্রাণের স্পন্দন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট সমাজসেবক মোঃ শামীম আহমদ বলেন, এই সিসি ক্যামেরা ধারায় আমি আশা করি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায়, দুর্নীতি চাঁদাবাজ সন্ত্রাসী কমে যাবে।
এতে করে সাধারণ মানুষের ব্যবসা-বাণিজ্য তে কেউ বাধা হস্তক্ষেপ করবে না।
আমি ব্যক্তিগতভাবে সিলেট জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন (পিপিএম)সাহেব কে অন্তরের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ জানাই।

 

তাছাড়াও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ আবুল হোসেন বলেন, একজন সাংবাদিক হিসেবে আমি মনে করি, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বাসি, সিসি ক্যামেরা ধারায় সুনিশ্চিত সুফল ভোগ করবে।

 

তাছাড়া এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার সৎ ও নিষ্ঠাবান ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ কেএম নজরুল বলেন, এলাকার শতভাগ নিরাপত্তা প্রদান, পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও জনগণের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করণে সিলেট জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম মহোদয় এর দিক নির্দেশনা অনুযায়ী, সংযোজন করা হচ্ছে ‘সিসি ক্যামেরা’। আপাতত বিভিন্ন পয়েন্টে বসানো হবে২০টি সিসি ক্যামেরা। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বাসির সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে বিভিন্ন পয়েন্টে পর্যায়ক্রমে আরও সিসি ক্যামেরা অতিসত্বর সংযোজন করা হবে বলে জানান, কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

print

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four + 17 =