কসোভোর সাথে একাধিকবার উত্তেজনা প্রেক্ষাপটে সার্বিয়ার সেনাবাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে

post top

বেলগ্রেড, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২২ : সার্বিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী মিলোস ভুসেভিক সোমবার সন্ধ্যায় বলেছেন, দেশটি সশস্ত্র বাহিনীকে ‘সর্বোচ্চ’ সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে। তিনি সাম্প্রতিক গুলিবর্ষণের ও অবরোধের কারণে প্রতিবেশী দেশ কসোভোর সাথে বলকান এ দেশের ক্রমবর্ধমান উত্তেজনাপূর্ণ সম্পর্কের কথাও তুলে ধরেন।

কসোভো ২০০৮ সালে সার্বিয়া থেকে স্বাধীনতা ঘোষণা করলেও বেলগ্রেড এটিকে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকার করে এবং জাতিগতভাবে  কসোভোতে থাকা ১২০,০০০ সার্বকে প্রিস্টিনার কর্তৃত্বকে অস্বীকার করতে উৎসাহিত করে, বিশেষকরে দেশটির উত্তরে যেখানে জাতিগতভাবে সার্বরা সংখ্যাগরিষ্ঠ।

খবরে বলা হয়, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে কসোভোর সাথে একাধিকবার উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষাপটে সার্বিয়ার সেনাবাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় থাকতে দেখা যায়। এরআগে গত নভেম্বরে কসোভো থেকে বেশ কয়েকটি ড্রোন সার্বিয়ার আকাশসীমায় প্রবেশ করার দাবির পর সেখানে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়তে দেখা যায়।
গত ১০ ডিসেম্বর  উত্তর কসোভোতে সার্বরা জাতিগতভাবে আলবেনীয় পুলিশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন হামলায় জড়িত সন্দেহে সাবেক এক পুলিশ কর্মকর্তাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে অবরোধ করে।

ন্যাটো নেতৃত্বাধীন শান্তিরক্ষী বাহিনী কেএফওআর জানায়, গুলিবর্ষণের পাশাপাশি অবরোধের রেশ ধরেই রোববারের সর্বশেষ উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।
সার্বিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী মিলোস ভুসেভিক এক বিবৃতিতে বলেন, এমন পরিস্থিতিতে ‘সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট দেশের সেনাবাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক (সশস্ত্র শক্তি ব্যবহারের) অবস্থায় থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।’

print

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × three =