করোনায় লক্ষণ নিয়ে বিয়ে, পরের দিনই বরের মৃত্যু

post top

 বিয়ের কয়েক দিন আগে থেকেই হবু বরের শরীরে কোভিডের সংক্রমণের লক্ষণ দেখা যাচ্ছিল। তবে তিনি তা উপেক্ষা করে বিয়ে করতে যান। সব আনুষ্ঠানিকতা ঠিক মতো হলেও বিয়ের পর দিনই মারা যান বিহারের ওই তরুণ। সদ্য বিবাহিত তরুণ মারা তো গেলেনই, সেই সঙ্গে বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া মানুষজনের শরীরেও ছড়িয়ে দিয়ে গেলেন এই মারণ রোগ।

এখনও পর্যন্ত এই বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া ৩৬৯ জনের শরীর থেকে নমুনা নিয়ে কোভিড পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৮৯ জনের পরীক্ষার ফল পজিটিভ এসেছে এবং ৩১ জন আগে থেকেই করোনা পজিটিভ ছিলেন বলে জানা গেছে। পাটনার পালিগঞ্জে হওয়া এই বিয়ের অনুষ্ঠান থেকেই করোনাভাইরাসের গোষ্ঠী সংক্রমণ ঘটেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

 দেশটির জেলা প্রশাসনের দেওয়া তথ্য অনুসারে, ১৫ জুন ওই বিয়ের অনুষ্ঠান হয় এবং তার পরদিন অর্থাৎ ১৬ জুন বর মারা যায়। জানা যায়, করোনায় আক্রান্ত হয়েই মৃত্যু হয়েছে তার। যারা বিয়েতে অংশ নিয়েছিলেন তাদের শরীরেও করোনার লক্ষণ দেখা দেওয়ায় তাদেরও টেস্ট করা হয় এবং মোট ১১১ জন নতুন করে সংক্রমিত হিসাবে ধরা পড়েন।

জানা গেছে, মৃত ওই যুবক বিয়ের আগে গাড়িতে করে বিহার থেকে কিছুদিনের জন্য দিল্লি এসেছিলেন। তারপর বিহারে পৌঁছে তিনি কিছুদিন কোয়ারেন্টিনেও ছিলেন। তখন যুবকের মধ্যে সেভাবে কোনও লক্ষণই দেখা যায়নি। কিন্তু বিয়ের ঠিক আগে আগেই তার শরীরে করোনার কিছু লক্ষণ দেখা দিতে শুরু করে, যদিও তিনি সেটা উপেক্ষা করেন। ফলে বিয়ের পরের দিনই তিনি মারা যান। সেই সঙ্গে বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া স্থানীয় দোকানদার, সবজি বিক্রেতা এবং মিষ্টান্ন প্রস্তুতকারকরাও তার থেকে সংক্রমিত হন এবং করোনা পজিটিভ হিসাবে ধরা পড়েন।

print

Share this post

post bottom

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 3 =