ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে সাউদাম্পটনের জালে ৯ গোল দিয়েছে ম্যানইউ

post top

ঘরের মাঠে সাউদাম্পটনকে ০-৯ গোলে হারিয়ে ইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ড স্পর্শ করলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

মঙ্গলবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে জয়ে ফিরতে মরিয়া ইউনাইটেডের আগুনে পুড়ল সাউদাম্পটন। ৯ জনের দলে পরিণত হওয়া দলটির বিপক্ষে গোল উৎসবে মেতে উঠল উলে গুনার সুলশারের দল। ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন অঁতনি মার্সিয়াল। একটি করে গোল পেয়েছেন অ্যারন ওয়ান-বিসাকা, মার্কাস র‍্যাশফোর্ড, এডিনসন কাভানি, স্কট ম্যাকটমিনে, ব্রুনো ফের্নান্দেস ও ড্যানিয়েল জেমস। অন্যটি আত্মঘাতী।

ম্যাচের শুরু আর শেষ দিকে লাল কার্ড দেখেন সাউদাম্পটনের দুই খেলোয়াড়।

প্রিমিয়ার লিগে এ নিয়ে তৃতীয়বার কোনো দল ৯ বা এর বেশি গোলে জিতল। ১৯৯৫ সালে ইপসউইচ টাউনের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৯-০ গোলে, ২০১৯ সালে সাউদাম্পটনের বিপক্ষে লেস্টার সিটি একই ব্যবধানে জিতেছিল।

ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই বড় ধাক্কা খায় সাউদাম্পটন। লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন সাউদাম্পটন মিডফিল্ডার আলেকজান্দ্রে ইয়ানকোভিতস।

১৮ মিনিটে প্রথম গোল করেন ওয়ান বিসাকা। সাত মিনিট পর ম্যাসন গ্রিনউডের পাস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন র‍্যাশফোর্ড। ৩৪ মিনিটে ইয়ান বেদনারেকের আত্মঘাতী গোলে ব্যবধান বাড়ে। পাঁচ মিনিট পর হেডে স্কোরলাইন ৪-০ করেন এডিনসন কাভানি।

দ্বিতীয়ার্ধের ন্যূনতম ব্যবধান গড়তে না পারা সাউদাম্পটন আরও দুই গোল খায় ম্যাচের ৬৯ ও ৭১ মিনিটে। নিজেদের মাঠে রীতিমত ছেলে খেলা শুরু করে রাশফোর্ড-মার্সিয়ালরা।

শেষ দিকে মার্সিয়ালকে ডি-বক্সে ফাউল করে লাল কার্ড পেলে ৯ জনের দলে পরিণত হয় সাউদাম্পটন। স্পট কিকে ব্রুনো ফার্নান্দেস বল জালে পাঠানোর পর নিজের দ্বিতীয় গোল করেন মার্সিয়াল। আর যোগ করা সময়ে ম্যাচের নবম গোলটি করেন জেমস। তাতে ১৯৯৫ সালের পর আবারো প্রতিপক্ষের জালে ৯ গোল দিল পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে থাকা ইউনাইটেড।

print

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five − five =